1. faysal.rakib2020@gmail.com : admin :
  2. ukbanglatv21@gmail.com : Kawsar Ahmed : Kawsar Ahmed
ফেসবুকে চুমুর ছবি ভাইরাল, দুই শিক্ষার্থী স্কুল থেকে বহিষ্কার - বাংলার কন্ঠস্বর ।। Banglar Konthosor
মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৯:৪২ অপরাহ্ন

ফেসবুকে চুমুর ছবি ভাইরাল, দুই শিক্ষার্থী স্কুল থেকে বহিষ্কার

  • প্রকাশিত :প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ২৫ আগস্ট, ২০২২
  • ১৩৪ 0 বার সংবাদি দেখেছে
গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি // গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে দুই শিক্ষার্থীর চুমুর ছবি ভাইরাল হওয়ার পর আলোচনা-সমালোচনার মধ্যে দুই শিক্ষার্থীকে বিদ্যালয় থেকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে।

বুধবার দিবাগত রাতে হিরণ পঞ্চপল্লী উচ্চ বিদ্যালয়ের একটি ফেসবুক আইডি থেকে প্রধান শিক্ষক স্বপন কুমার মন্ডল স্বাক্ষরিত ওই বহিষ্কারাদেশ নোটিশ প্রকাশ করা হয়।

নোটিশে উল্লেখ করা হয়েছে, ওই দুই শিক্ষার্থীর অনৈতিক কার্যকলাপের জড়িত হওয়া এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তা ছড়িয়ে পড়ায় বিদ্যালয়ের পরিবেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হয়েছে। এই অপরাধে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত মোতাবেক তাদের বিদ্যালয় হতে সাময়িক বহিষ্কার করা হলো। একইসঙ্গে বিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত অন্য সকল শিক্ষার্থীকে সতর্ক করা হলো।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্কুলের একাধিক শিক্ষার্থী জানায়, ওই দুই শির্ক্ষথীর মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তারা তিন/চার মাস আগে ঘুরতে যায়। সেখানে তারা তাদের একটি চুমুর ছবি তোলে। সম্প্রতি তাদের সম্পর্ক ভেঙে যায়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে প্রেমিক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে আগে তোলা চুমুর ছবিটি ছেড়ে দেয়। পরে ছবিটি ফেসবুকে ভাইরাল হয়।

সাময়িক বহিষ্কার হওয়া প্রেমিকের দাবি, ‘চুমুর ছবিটি আমি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছাড়িনি। কে বা কারা ছেড়েছে তা আমি জানি না।’

স্কুলটির প্রধান শিক্ষক স্বপন কুমার মন্ডল সাময়িক বহিষ্কারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ওই দুই শিক্ষার্থীর চুমুর ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়। এ নিয়ে এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে আমাদের কাছে ছবিটি চলে আসে। তারপর স্কুলের শিক্ষার্থীদের মধ্যে নানা গুঞ্জন শুরু হয়।

তিনি আরও বলেন, ওই দুই শিক্ষার্থীকে ক্লাসে রেখে ক্লাস করাতে আপত্তি করেন স্কুলের শিক্ষকমণ্ডলী। এ নিয়ে স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভা ডাকা হয়। সভায় ছাত্রী এটি তার ছবি বলে আমাদের জানান। ম্যানেজিং কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক রেজুলেশন করে ওই দুই শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। তাদেরকে টিসি দেয়া হয়নি। দুই শিক্ষার্থীর অভিভাবকদের সাথে ম্যানেজিং কমিটির সদস্যরা আলাপ আলোচনা করছেন। তারা সম্মত হয়ে কোনো কিছু জানালে ম্যানেজিং কমিটি বসে তাদের ব্যাপারে পরবর্তী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে।

এ বিষয়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সিদ্দিক নূর আলম বলেন, দুই শিক্ষার্থী বহিষ্কারের বিষয়টি আমার জানা নেই। বিষয়টি জেনে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

‍এই ক্যাটাগরির ‍আরো সংবাদ