1. faysal.rakib2020@gmail.com : admin :
  2. ukbanglatv21@gmail.com : Kawsar Ahmed : Kawsar Ahmed
থানায় নারী পুলিশকে নিয়ে দুই কনস্টেবলের লড়াই, গুলিবর্ষণ - বাংলার কন্ঠস্বর ।। Banglar Konthosor
রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ০৪:১৭ পূর্বাহ্ন

থানায় নারী পুলিশকে নিয়ে দুই কনস্টেবলের লড়াই, গুলিবর্ষণ

  • প্রকাশিত :প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ৮ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ২৬৭ 0 বার সংবাদি দেখেছে
নিজস্ব প্রতিবেদক // ভারতের উত্তরপ্রদেশে নারী সহকর্মীর সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে মন্তব্য করায় অপর সহকর্মীর ওপর ক্ষুব্ধ হয়ে থানার ভেতর গুলি ছুড়েছেন এক পুলিশ কনস্টেবল। গত সোমবার রাতে বরেলি জেলার বাহেরি থানায় এ ঘটনা ঘটে।স্থানীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, এ ঘটনায় পাঁচজনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এ নিয়ে দেওয়া হয়েছে বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ।

সংশ্লিষ্টরা জানান, চলতি বছরের শুরুতে বাহেরি থানায় পার্শ্ববর্তী জেলা মুজফফরনগর থেকে একজন নারী কনস্টেবল যোগ দেন। থানার কনস্টেবল মনু কুমার তাকে আগে থেকেই চিনতেন। একপর্যায়ে কর্মক্ষেত্রে দুজনের মধ্যে সম্পর্ক তৈরি হয়।

যেহেতু তারা দুজনই আলাদা বর্ণের, তাই অপর সহকর্মী কনস্টেবল যোগেশ চাহাল এ নিয়ে প্রায়ই উপহাস করতেন। গত সোমবার রাতে বিষয়টি বাড়াবাড়ি পর্যায়ে চলে গেলে ক্ষুব্ধ হয়ে গুলি ছোড়েন প্রেমিক মনু।

পুলিশের একটি সূত্র জানিয়েছে, কনস্টেবল সার্ভিস রিভলভার হাতে নিয়ে মেঝের দিকে তাক করে গুলি ছোড়েন। তিনি বিশেষ করে কাউকে লক্ষ্য করেননি। কেবল তরুণ সহকর্মীর ওপর ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছিলেন।

এ ঘটনায় তাদের সবাইকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। একইসঙ্গে বরখাস্ত হয়েছেন বাহেরি থানায় অস্ত্রাগারের দায়িত্বে থাকা মনোজ কুমার। কনস্টেবল মনু গুলি চালানোর পরে বন্দুকটি তাকে ফিরিয়ে দেন।

পুলিশ সুপার অনিরুদ্ধ পঙ্কজ বলেন, ‘কোনো পুলিশ সদস্য যদি সহকর্মীর সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন, সেটা তার ব্যক্তিগত বিষয়।

এতে আপত্তিকর বা বেআইনি কিছু নেই। শুধুমাত্র দায়িত্বে অবহেলার জন্য এবং শৃঙ্খলাভঙ্গের কারণে তাদের সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।’ মনু কুমার উত্তরপ্রদেশের বাগপত জেলার বাসিন্দা। তিনি ২০১৯ সাল থেকে বাহেরি থানায় রয়েছেন।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

‍এই ক্যাটাগরির ‍আরো সংবাদ