1. faysal.rakib2020@gmail.com : admin :
  2. ukbanglatv21@gmail.com : Kawsar Ahmed : Kawsar Ahmed
সার্বজনীন দূর্গামন্দিরের প্রতিমা ভাঙচুর, মেহেন্দিগঞ্জে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা সৃষ্টির পাঁয়তারা - বাংলার কন্ঠস্বর ।। Banglar Konthosor
সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ০১:৫৭ অপরাহ্ন

সার্বজনীন দূর্গামন্দিরের প্রতিমা ভাঙচুর, মেহেন্দিগঞ্জে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা সৃষ্টির পাঁয়তারা

  • প্রকাশিত :প্রকাশিত : রবিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ১০৯ 0 বার সংবাদি দেখেছে

 

বার্তা পরিবেশক, মেহেন্দিগঞ্জ।।
বরিশাল জেলার মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার চানপুর ইউনিয়নের কাশিপুর সার্বজনীন দূর্গামন্দির’র প্রতিমা ভাংচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল রবিবার সকালে প্রতিমা ভাঙ্গা অবস্থায় দেখতে পায় মন্দির কমিটির সদস্যরা। তারা জানান, একদল দুর্বৃত্ত শনিবার দিবাগত গভীর রাতে এই ভাংচুরযজ্ঞ চালায়। এদিকে এ ঘটনা শুনে তাৎক্ষনিক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নুরুন্নবী ও ওসি শফিকুল ইসলামসহ সঙ্গীয় ফোর্স ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এবিষয়ে মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি বাদল কৃষ্ণ পাল জানান, উপজেলার কাশিপুর মন্দিরের প্রতিমা ভাংচুরের সংবাদ পেয়ে তাৎক্ষণিক আমরা ঘটনাস্থলে ছুটে যাই। মন্দিরের প্রতিমার একটি অংশ ভাংচুর করা হয়েছে বলে দেখতে পেয়েছি। এদিকে স্থানীয়দের দাবী, সাম্প্রদায়িক বিষবাষ্প ছড়ানোর জন্য এমন ঘটনা ঘটিয়ে থাকতে পারে দুর্বৃত্তরা। কেননা পুরো বিষয়টি রহস্যজনক। কেউ কেউ বলেন, ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের মতো সাম্প্রদায়িক বিষবাষ্প ছড়ানোর ষড়যন্ত্রের খেলায় মেতে উঠতে পারে অশুভ শক্তি। পর্দার অন্তরাল থেকে কলকাঠি নাড়ছে কিনা কেউ তা তদন্ত করে দেখা উচিত। সুপরিকল্পিত ষড়যন্ত্র ও চক্রান্ত বলে ধারণা সচেতন মহলের। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, মূর্তিগুলো ভালো করে শুকায়নি, নির্মাণ কাজ চলমান। প্রতিমার মাথা কাটা, কাটা মাথা পায়ের নিচে পড়ে আছে। নির্ভরযোগ্য একটি সুত্র জানায়, ওই মন্দিরে তিনজন পাহারাদার ছিল । ঘটনার রাতে তারা অজ্ঞাত কারণে পাহারা না দিয়ে বাড়িতে চলে যান। পাহারাদাররা ছিলেন হিন্দু সম্প্রদায়ের।

 

অভিযোগ রয়েছে স্থানীয় এমপি পংকজ নাথ ইতিপূর্বে তার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে একাধিক মন্দির ভাঙ্গা, মূর্তি ভাঙ্গা, অগ্নিসংযোগ, ও হিন্দু বাড়িতে হামলা ও ভাংচুরের অভিযোগ করে আসছিলেন যা পরবর্তীতে প্রশাসনের তদন্তে অসত্য প্রমাণিত হওয়ায় সেগুলো আমলে নেয়নি প্রশাসন।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নুরুন্নবী জানান, প্রতিমা নির্মাণ কাজ চলমান, প্রতিমা এখনও কাচা, একটির মাথা ভাঙ্গা আরেকটির হাত ভাঙ্গা, তবে কেউ ভেঙ্গেছে না কি কাচা হওয়ার দরুন দুর্ঘটনা তা এখনি বলা যাচ্ছে না। তবে ভাংচুরকারীদের চিহ্নিত করে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

‍এই ক্যাটাগরির ‍আরো সংবাদ