1. faysal.rakib2020@gmail.com : admin :
আজ শুভ বিজয়া দশমী: অশ্রুসিক্ত নয়নে দেবীকে বিদায় জানানোর পালা - বাংলার কন্ঠস্বর ।। Banglar Konthosor
বুধবার, ২৯ নভেম্বর ২০২৩, ০৪:০৭ পূর্বাহ্ন

আজ শুভ বিজয়া দশমী: অশ্রুসিক্ত নয়নে দেবীকে বিদায় জানানোর পালা

  • প্রকাশিত :প্রকাশিত : বুধবার, ৫ অক্টোবর, ২০২২
  • ৭২ 0 বার সংবাদি দেখেছে

নিজস্ব প্রতিবেদক // আজ বুধবার শুভ বিজয়া দশমী। শারদীয় দুর্গোৎসবের শেষ দিন। অশ্রুসিক্ত নয়নে দেবীকে আজ বিদায় জানানোর পালা। দেবী দুর্গা মর্ত্যলোক ছেড়ে ফিরে যাবেন হিমালয়ের কৈলাসে স্বামী শিবের সান্নিধ্যে। এদিন প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হবে হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব পাঁচ দিনের শারদীয় দুর্গোৎসব।

মর্ত্যে পাঁচ দিন মৃন্ময়ীরূপে মণ্ডপে মণ্ডপে অবস্থান করে আজ বিদায় নেবেন দেবী দুর্গা। সনাতন ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজার গতকাল ছিল মহানবমী। এই দিন আনন্দের মাঝে বিষাদের ছায়ায় শোকাচ্ছন্ন করে দেবীভক্তদের মনে।

গতকাল মঙ্গলবার সকালে কল্পারম্ভ ও বিহিতপূজার মাধ্যমে শুরু হয় মহানবমীর আনুষ্ঠানিকতা। পূজা শেষে ভক্তরা দেবীর চরণে অঞ্জলি নিবেদন করেন। সকাল ৯টা ৫৭ মিনিটে রাজধানীর ঢাকেশ্বরী মন্দির এবং সব পূজামণ্ডপে শুরু হয়েছে মহানবমী ও বিহিতপূজা।

মহানবমীর দিন বিকাল ৪টায় শারদীয় দুর্গোৎসব উপলক্ষে ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দির অঙ্গনে শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানে গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাংলাদেশের নাগরিকরা যার যার ধর্ম স্বাধীনভাবে পালন করবে বলে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা প্রত্যেকটা উৎসবই ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সবাই মিলে উদযাপন করি। যে কারণে বলি- ধর্ম যার যার উৎসব সবার।

এদিন সকালে খামারবাড়ী কৃষি ইনস্টিটিউটের দুর্গাপূজা মণ্ডপে আসা অবন্তী দাস ও শ্রাবন্তী দাস জানান, গত বছর করোনার কারণে বাসা থেকে বের হতে পারিনি। তাই পূজা দেখতে পারিনি, দুর্গা মায়ের আশীর্বাদও নিতে পারিনি। এবার দিদা, দাদা, মা আর বাবার সঙ্গে পূজা দেখতে এসেছি। খুব ভালো লাগছে আমার।

মণ্ডপে আগত দর্শনার্থী দেবাশীষ দত্ত বলেন, পরিবারসহ এসেছি সন্ধিপূজায় শামিল হতে। শুধু ভক্তরা নয়, মণ্ডপে এসেছিলেন দর্শনার্থীরাও। এমন এক দর্শনার্থী সুজন জানান, প্রতিবারই দুর্গাপূজায় আসা হয়। তাই এবারও বন্ধুদের সঙ্গে চলে এসেছি।

সনাতন ধর্মমতে, নবমীর পুণ্য তিথিতে অশুভ শক্তির বিনাশ ঘটিয়ে বিশ্বে শুভশক্তির প্রকাশ ঘটিয়েছিলেন দেবী দুর্গা। নবমী তিথি শুরু হয় সন্ধিপূজা দিয়ে। অষ্টমীর শেষ ২৪ মিনিট ও নবমীর প্রথম ২৪ মিনিট সর্বমোট ৪৮ মিনিটে করা হয় সন্ধিপূজা। মূলত দেবী চামুণ্ডার পূজা করা হয় এ সময়।

এ সময়েই দেবী দুর্গার হাতে বধ হয়েছিল মহিষাসুর, আর রাম বধ করেছিলেন রাবণকে। আজ সকালে দশমী বিহিতপূজা ও পূজান্তে দর্পণ বিসর্জন। দুপুর ১২টায় স্বেচ্ছায় রক্তদান এবং বিকাল ৪টায় বিজয়া শোভাযাত্রা।

এদিকে গতকাল মঙ্গলবার জাতীয় গ্রিডে বিদ্যুতের বিপর্যয় দেখা দেওয়ায় রাজধানী ঢাকার সব পূজাম-পের জন্য বাড়তি সতর্কতা জারি করে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)।

যেসব মণ্ডপে জেনারেটর ছিল না, সেসব মণ্ডপে সন্ধ্যার আগেই জেনারেটরের ব্যবস্থা করে পর্যাপ্ত আলো এবং সিসিটিভি সচল রাখা হয়। এ সময় পোশাকে ও সাদা পোশাকে পুলিশ সার্বক্ষণিক টহল ও নজরদারিতে ছিল।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

‍এই ক্যাটাগরির ‍আরো সংবাদ