1. faysal.rakib2020@gmail.com : admin :
  2. ukbanglatv21@gmail.com : Kawsar Ahmed : Kawsar Ahmed
চিহ্নিত হচ্ছে কারিগরির ৫ হাজার জাল সনদধারীরা - বাংলার কন্ঠস্বর ।। Banglar Konthosor
রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ০১:২০ পূর্বাহ্ন

চিহ্নিত হচ্ছে কারিগরির ৫ হাজার জাল সনদধারীরা

  • প্রকাশিত :প্রকাশিত : শনিবার, ১১ মে, ২০২৪
  • ৯ 0 বার সংবাদি দেখেছে

ঘুষ দিয়ে জালিয়াতি করে যারা সনদ নিয়েছিলেন তাদের চিহ্নিত করার কাজ শুরু করতে যাচ্ছে কারিগরি শিক্ষা বোর্ড। কারিগরি বোর্ডের পাঁচ হাজার জাল সনদ চিহ্নিত করে সেগুলো বাতিল করা হবে বলে জানিয়েছে বোর্ড। চলতি মাসের মাঝামাঝিতে কারিগরি বোর্ডে হতে পারে ব্যাপক রদবদল। এমনই আভাস দিয়েছে শিক্ষামন্ত্রণালয়।

কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের সিনিয়র সিস্টেম অ্যানালিস্ট একেএম শামসুজ্জামান পাঁচ হাজার মানুষকে জালসনদ দিয়েছেন। বোর্ডের আসল সার্টিফিকেট এবং মার্কশিটের খালি কপি চুরি করে এসব সার্টিফিকেট তৈরি করতেন তিনি। শিক্ষাবোর্ডের ওয়েবসাইটেও এসব সার্টিফিকেটের তথ্য দেয়া হয়। এই চক্রের মূলহোতা শামসুজ্জামানকে সম্প্রতি আটক করে পুলিশ।

বাংলাদেশ পলিটেকনিক শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক জি এম আকতার হোসেন বলেন, মধ্যপ্রাচ্যসহ অন্যান্য বিভিন্ন দেশে এসব সনদগ্রহণকারী শিক্ষার্থীরা গিয়ে কাজ করছেন। কিন্তু তাদের কাজের দক্ষতা নিয়ে সন্দিহান এ দেশগুলোতেও সনদ নিয়ে ওঠে প্রশ্ন। ফলে যারা ভালোভাবে লেখাপড়া শেষ করে কারিগরি বোর্ডের সনদ নিয়ে এসব দেশে যাবে, তাদের জন্য একটা সমস্যার সৃষ্টি হবে। বিশ্বাসের জায়গা থেকে নানা জটিলতায় পড়ার শঙ্কা রয়েছে তাদের নিয়ে।

আর শিক্ষা বোর্ড বলছে, সনদের সফটওয়্যারের পাসওয়ার্ডসহ যাবতীয় ডকুমেন্টস ছিল একেএম শামসুজ্জামানের কাছে। সেই সফটওয়্যারটি উদ্ধার করা হয়েছে। এখন শুরু হবে সনদগুলো চিহ্নিত করার কাজ।

কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মামুন উল হক বলেন, ‘আমাদের সনদ চিহ্নিতকরণের কাজ শুধু পাঁচ হাজারের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকবে না। আরও বড় পরিসরে এ কর্মসূচি চলবে।’

এসএসসির ফল প্রকাশের পর কারিগরি বোর্ডের বেশিরভাগ পদে রদবদল আনা হবে বলে জানিয়েছে শিক্ষামন্ত্রণালয়।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদ্রাসা বিভাগের সচিব অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমদ বলেন, ‘কারিগরি বোর্ডের একজন বড় জালিয়াতকে আমরা চিহ্নিত করতে পেরেছি। এই জাল সনদ বের করার কাজের সঙ্গে বোর্ডের অনেক কর্মকর্তা, কর্মচারী জড়িত আছে। পুলিশের কাছে থেকে সঠিক তথ্য পাওয়ার পর অবশ্যই আমরা তাদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ গ্রহণ করব।’

এই ঘটনায় কারিগরি বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান আলী আকবর খানের সংশ্লিষ্টতা আছে কিনা সেটিও তদন্ত করে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে মন্ত্রণালয়।

এর আগে সনদ বাণিজ্যে জড়িত থাকার অভিযোগে গত ১ এপ্রিল দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে রাজধানীর মিরপুরের দক্ষিণ ও মধ্য পীরেরবাগ এবং আগারগাঁও এলাকায় অভিযান চালিয়ে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের সিস্টেম অ্যানালিস্ট একেএম শামসুজ্জামান এবং তার সহযোগী ফয়সাল হোসেনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Comments are closed.

‍এই ক্যাটাগরির ‍আরো সংবাদ