1. faysal.rakib2020@gmail.com : admin :
  2. ukbanglatv21@gmail.com : Kawsar Ahmed : Kawsar Ahmed
তজুমদ্দিনে স্কুলছাত্রী অপহরণ: ৪ দিন পরও উদ্ধার হয়নি - বাংলার কন্ঠস্বর ।। Banglar Konthosor
মঙ্গলবার, ০৯ এপ্রিল ২০২৪, ০২:৫১ অপরাহ্ন

তজুমদ্দিনে স্কুলছাত্রী অপহরণ: ৪ দিন পরও উদ্ধার হয়নি

  • প্রকাশিত :প্রকাশিত : শনিবার, ২০ আগস্ট, ২০২২
  • ১৮০ 0 বার সংবাদি দেখেছে

তজুমদ্দিন (ভোলা) প্রতিনিধি // ভোলার তজুমদ্দিনে নবম শ্রেণিতে পড়ুয়া এক স্কুলছাত্রীকে অপহরণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। অপহরণের পর ৪দিন অতিবাহিত হলেও অপহৃত ছাত্রীকে উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। এঘটনায় অপহৃত ছাত্রী মা বাদী হয়ে তজুমদ্দিন থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ দুই আসামীকে গ্রেপ্তার করে জেলহাজতে প্রেরণ করেন।

মামলার এজহার সূত্রে জানা যায়, উপজেলার শম্ভুপুর ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা লিটন দাসের মেয়ে নিপা রানী দাস (১৪) শম্ভুপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণিতে পড়েন। স্কুলে আসা যাওয়ার পথে উত্তর চাঁচড়া ৩নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা আব্দুল কাদেরের ছেলে মোঃ মনির তাকে প্রেমের প্রস্তাবসহ বিভিন্ন কু-প্রস্তাব দিতেন। মনিরের এসব বিষয় অপহৃত ছাত্রী তার বাবা-মাকে জানান। মেয়েকে উত্যক্ত করার বিষয়টি লিটন দাস মনিরের পিতা আব্দুল কাদেরসহ তার আত্নীয়-স্বজনকে জানালেও তারা কোন ব্যবস্থা নেয়নি। পরে ১৭ আগস্ট সকাল সাড়ে ৭টায় নিপা রানী দাস প্রাইভেট পড়তে বাসা থেকে বের হয়ে শম্ভুপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সামনে আসলে পূর্বে থেকে ওৎ পেতে থাকা রুবেল ও সোহেলসহ আরো ২/৩ জনের সহযোগীতায় ওই হিন্দু ছাত্রীকে অপহরণ করে মোটরসাইকেলযোগে নিয়ে যায় মনির। অপহরণের বিষয়টি মনিরের পরিবারকে জানালে তারা ওই ছাত্রীর পরিবারকে বিভিন্ন হুমকি-ধামকি প্রদান করেন বলেও এজহারে উল্লেখ রয়েছে।

অপহরণের পর ৪দিন অতিবাহিত হলেও অপহরণের শিকার ওই হিন্দু শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। এঘটনায় অপহৃত ছাত্রীর মা কাকলী রানী দাস বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০(সংশোধিত/০৩) এর ৭/৩০ ধারায় ৫জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ২-৩ জনকে আসামী করে তজুমদ্দিন থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং ০৯। আসামীরা হলেন, মোঃ মনির (২৬), রুবেল (২৩), মোঃ আব্দুল কাদের (৫৫), মোঃ সোহেল (২৮) ও মোঃ কাঞ্চনসহ (৪০) অজ্ঞাত আরো ২-৩ জন। পরে পুলিশ এজহারনামীয় আসামী সোহেল ও কাঞ্চনকে গ্রেপ্তার করে জেলহাজতে প্রেরণ করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে শম্ভুপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ জামাল উদ্দিন বলেন, অপহরণের শিকার ছাত্রীর মা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। আমি স্কুলের স্বার্থে সার্বক্ষণিক প্রশাসনের সাথে যোগাযোগ রাখছি। অপহরণকারীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি যাতে আরে কেউ স্কুলের ছাত্রীদের সাথে এধরনের কাজ করতে সাহস না পায়।

জানতে চাইলে মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা তজুমদ্দিন থানার এসআই মোঃ জাকির হোসেন বলেন, অপহরণের ঘটনায় মামলা দায়েরের পর আসামী ২জনকে গ্রেপ্তার করে জেলহাজতে প্রেরণ করি। বাকী আসামীদের গ্রেপ্তার ও মামলার তদন্ত অব্যাহত রয়েছে।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

‍এই ক্যাটাগরির ‍আরো সংবাদ